সিপিএ মার্কেটিং
সিপিএ মার্কেটিং শিখুন

সিপিএ মার্কেটিং এমন একটি অনলাইন মার্কেটিং পদ্ধতি যেখানে একজন টারগেটেড কাস্টমার এর কাছ থেকে নির্দিষ্ট একটি কাজ সম্পন্ন করানোর মাধ্যমে এডভারটাইজার আপনাকে টাকা দিবে। এখানে আপনি একজন কাস্টমারের কাছ থেকে একবারই আয় করতে পারবেন এবং এর জন্য আপনি প্রথমবারেই অনেক টাকা দিবে।

সফল সিপিএ মার্কেটার হতে যা যা করনীয়ঃ

সিপিএ মার্কেটিং শুরু করার আগে আপনাকে স্টাডি করতে হবে। চলুন দেখা যাক, কীভাবে আপনি একজন সফল সিপিএ মার্কেটিং হতে পারেন।

  • আপনি কোন লোকাল প্রতিষ্ঠান থেকে শিখতে পারেন। তবে আগে যাচাই করে দেখবেন তাদের রিপুটেশন কতটা ভাল এবং এই ক্ষেত্রে আগে অবশ্যই তাদের কোর্স আউটলাইন ভালভাবে দেখে নিবেন।
  • আপনি কোন ওয়েবসাইট থেকে ভিডিও টিউটোরিয়াল কিনার মাধ্যমেও শিখতে পারেন।
  • ভাল কোন ইন্সট্রাক্টর এর কাছ থেকেও কোর্স ভিডিও সংগ্রহ করতে পারেন।
  • আপনি অনলাইন মার্কেটিং এর উপর কোর্স করতে পারেন। যেমনঃ ইমেল মার্কেটিং, সার্চ ইঞ্জিন মার্কেটিং, ভিডিও মার্কেটিং ইত্যাদি।
  • সিপিএ মার্কেটিং এর উপর অনলাইনে অনেক ই-বুক পাওয়া যায় সেগুলো ডাউনলোড করে নিলে অনেক ভাল ভাল টিপস পাবেন।
  • আপনাকে আগে অবশ্যই সিপিএ মার্কেটিং এর প্রক্রিয়াটা বুঝতে হবে। কীভাবে, কাকে, কোন অফারটা ইত্যাদি বিষয় গুলা আপনাকে বুঝতে হবে।
  • আপনার অবশ্যই একটি ওয়েবসাইট থাকতে হবে। পেইড ডোমেইন নিতে হবে এবং সেখানে আপনি ল্যান্ডিং পেজ তৈরি করে হোস্ট করবেন সাথে একটা SSL Certificate এড করে নিবেন তাহলে আপনার সাইট সিকিউর থাকবে কারন সবাই সিকিউর সাইটে ভিজিট করতে নিরাপদবোধ করে। এই স্কিলগুলো আপনার মার্কেটিং শুরু করার জন্য খুব প্রয়োজনীয়।
  • পিপিসি মেথডে মার্কেটিং কীভাবে করে তা শিখুন। এর মাধ্যমে আপনি টারগেটেড ট্রাফিক পাওয়ার ভাল সুযোগ থাকে।
  • একজন সিপিএ মারকেটার হিসেবে আপনাকে সবসময় মাথায় রাখতে হবে যে কীভাবে এবং কত রকম ভাবে ওয়েবসাইটে ট্রাফিক আনা যায়। এরজন্য সোস্যাল মিডিয়া সাইটগুলো আপনাকে অনেক সহায়তা করবে। সোস্যাল মিডিয়াতে কীভাবে প্রফেশনালি কাজ করা যায় তা শিখুন।
  • আপনি যত মার্কেটিং মেথড সম্পর্কে জানেন তা আপনার ওয়েবসাইটে ট্রাফিক আনার জন্য প্রয়োগ করুন। এবং এটা রেগুলার করে যাবেন। একদিনে মার্কেট বুঝে ফেলার চেষ্টা করবেন না।
  • আপনি যখন যেভাবে কাজ করছেন তার একটা রেকর্ড সব সময় জমা রাখবেন। এতে আপনি আপনার কাজগুলা সহজে মনিটর করতে পারবেন। কখন কোথায় সফলতা পেয়েছেন বা ব্যর্থ হয়েছেন তার একটা রিপোর্ট নিজের কাছে থাকলে তাহলে আপনার পরবর্তী কাজের জন্য অনেক সহায়ক হবে।
  • একটি নিশ বাছাই করুন যেটা আপনি ভাল বুঝেন। এটা হতে পারে স্বাস্থ্য সম্পর্কিত বা বিজনেস অপরচুনিটি বা অন্য যে কোন কিছু।
  • মার্কেটিং করার জন্য ভাল কোন অফার খুঁজেন। এর জন্য আপনি অফারভোল্ট বা অডিগার থেকে হেল্প নিতে পারেন।
  • এক বা একাধিক বিশ্বাসযোগ্য সিপিএ মার্কেটিং প্লেসে একাউন্ট খুলোন।
  • কাজ করতে থাকুন এবং সেই সাথে ভাল ভাল ব্লগ বা ফোরাম এ একটিভ থাকবেন। তাহলে আপনি অনেক ভাল ভাল টিপস পাবেন। এই প্লেস গুলাতে অনেক এক্সপার্টরা থাকে। ফলে আপনি তাদের কাছ থেকেও হেল্প নিতে পারবেন।

সম্পূর্ণ লেখাটি পড়ার জন্য ধন্যবাদ।

আজকে এই পর্যন্ত। আপনাদের কোন প্রশ্ন থাকলে অবশ্যই নিচে কমেন্ট করে জানাবেন। আমি যথাসাধ্য চেষ্টা করব।

ভাল থাকবেন।

LEAVE A REPLY

thirteen + nine =