আজকে আমি আপনাদের সামনে বর্তমান সময়ের খুব আলোচিত একটি অনলাইন আরনিং মেথড নিয়ে আলোচনা করব। বিষয়টি সিপিএ মার্কেটিং নিয়ে। আমি ব্যক্তিগতভাবে প্রায় সাড়ে ৩ বছরের উপর সিপিএ মার্কেটিং নিয়ে কাজ করে আসছি। যদিও অনলাইন মার্কেটিং এ আমার অভিজ্ঞতা ৬ বছরের উপর। তাহলে চলুন কথা না বাড়িয়ে মূল বিষয়ে আসা যাক।

সিপিএ মার্কেটিং কি?

সিপিএ (CPA) এর ফুল মিনিং হল কস্ট পার একশন (Cost Per Action)। এটা কস্ট পার একুইজিশন (Cost Per Acquisition) অথবা পে পার একুইজিশন (Pay Per Acquisition) এবং কস্ট পার কনভারজন (Cost Per Conversion) নামেও পরিচিত যেখানে একজন বিজ্ঞাপনদাতা আপনাকে একটি নির্দিষ্ট করে দেয়ার মাধ্যমে টাকা দিবে।

সিপিএ এর কাজগুলা কেমন হয়?

সিপিএ এর কাজগুলা তুলনামূলকভাবে অন্যান্য বিষয়ের চেয়ে অনেক সহজ। যেমনঃ ইমেইল সাবমিট/ জিপ সাবমিট, রেজিস্ট্রেশন, ক্রেডিট কার্ড সাবমিট, পে পার কল, ডাউনলোড-ইন্সটল ইত্যাদি। বিজ্ঞাপনদাতা আপনাকে তখনি পে করবে যখন তার নির্দেশিত কাজটি সম্পন্ন হবে। এফিলিয়েট মার্কেটিং বলতে আমরা জানি, আপনি শুধু তখনি টাকা পাবেন যখন আপনি একটি প্রোডাক্ট বিক্রি করতে পারবেন। কিন্তু সিপিএ এর ক্ষেত্রে এই জটিলতা নেই। সুতরাং, বুঝাই যাচ্ছে সিপিএ মার্কেটিং মাধ্যমে আয় করা কতটা সহজ।

সিপিএ মার্কেটিং এর সুবিধাসমূহঃ

  • এখানে কোনকিছু বিক্রি করা বাধ্যতামূলক না অর্থাৎ কোন কিছু বিক্রি না করেও আয় করতে পারবেন।
  • এর জন্য বিশাল আকারে কোন ওয়েব সাইট তৈরি করতে হবে না। ছোট একটা ল্যান্ডিং পেজ নিজেই খুব সহজে তৈরি করে মার্কেটিং করতে পারবেন।
  • এটা করা খুবই সহজ। আপনাকে খুব অভিজ্ঞ হতে হবে না।
  • সর্বোপরি, এটা শুরু করা খুবই সহজ।

সিপিএ মার্কেটিং শুরু করতে কি কি লাগবে?

সিপিএ মার্কেটিং এর একটা সুবিধা হচ্ছে আপনি খুব এক্সপার্ট না হলেও কাজ শুরু করতে পারেন এবং কম বা বেশী যাই হোক আয় করতে পারবেন। সিপিএ মার্কেটিং শুরু করতে হলে আপনাকে কিছু বিষয় জানা থাকতে হবে এবং কিছু উপাদানও থাকতে হবে। নিচে লিস্ট আকারে দেয়া হলঃ

  • মার্কেটিং জ্ঞান (সোশ্যাল মিডিয়া মার্কেটিং, ই-মেইল মার্কেটিং, ভিডিও মার্কেটিং, সার্চ ইঞ্জিন মার্কেটিং, ব্যানার এডস, পিপিসি, পিপিভি ইত্যাদি) থাকতে হবে।
  • বিশ্বস্ত একটি সিপিএ মার্কেটপ্লেসে একাউন্ট থাকতে হবে।
  • কম্পিউটার (ল্যাপটপ/ডেস্কটপ) থাকতে হবে।
  • ইন্টারনেট সংযোগ থাকতে হবে।
  • ডোমেইন ও হোস্টিং থাকতে হবে সেই সাথে SSL Certified হলে আরও ভাল কারন এতে ভিজিটর ট্রাস্ট বৃদ্ধি পাবে।
  • ল্যান্ডিং পেজ বানানোর দক্ষতা থাকতে হবে।
  • একটি ফোন নাম্বার যাতে প্রয়োজনে নিজের সত্যতা যাচাই করতে পারেন।

কীভাবে বা কোথায় থেকে সিপিএ মার্কেটিং শিখবেন?

যেকোন কিছু শিখার জন্য ইউটিউব এবং গুগল আমাদের খুব কাছের বন্ধু। তাছাড়া, আপনি যেকোন বিশ্বস্ত ট্রেনিং প্রতিষ্ঠান থেকে সিপিএ মার্কেটিং শিখতে পারেন। তবে নতুনদের জন্য আমি পরামর্শ দিব প্রথম অবস্থায় কোন প্রতিষ্ঠানে গিয়ে না শিখার জন্য। কারন, মাত্র ১০-১২ টা ক্লাসের মাধ্যমে আপনি সিপিএ মার্কেটিং এর কিছুই শিখতে পারবেন না। এর জন্য আপনাকে অবশ্যই আগে মার্কেটিং মেথডগুলো নিয়ে ভালমত স্টাডি করতে হবে।

আজকে এই পর্যন্তই। আপনাদের সিপিএ নিয়ে কোন প্রশ্ন থাকলে নিচে কমেন্ট করে জানান।

ধন্যবাদ।

LEAVE A REPLY

2 × five =