কীভাবে পেওনিয়ার একাউন্ট খোলা যায় এবং মাস্টার কার্ড পেতে পারেন জানুন।

0
209

আসসালামুয়ালাইকুম, আমি রিয়াদ খান Tech Pagla-র ফাউন্ডার এবং এডমিন। Techpagla-র পক্ষথেকে আপনাদের সবাইকে স্বাগত জানাচ্ছি। আশা করি, সবাই ভাল আছেন। আমাদের টিউটোরিয়াল নিয়ে আপনাদের কোন প্রশ্ন থাকলে জানাতে পারেন। আমাদের ফেসবুক পেজেফেসবুক গ্রুপেটুইটারেলিংকডইনে

এখানে ক্লিক করে আমাদের চ্যানেলটি সাবস্ক্রাইব করে রাখুন।

আর কথা না বাড়িয়ে চলুন মূল পর্বে আসা যাকঃ

বিভিন্ন সিপিএ নেটওয়ার্কে কাজ করে সেখান থেকে টাকা উত্তোলনের জন্য খুব ভাল একটি মাধ্যম হচ্ছে পেওনিয়ার।পেওনিয়ারে অ্যাকাউন্ট খোলার মাধ্যমে আপনি বিভিন্ন সিপিএ নেটওয়ার্কপ্লেস থেকে টাকা উত্তোলন করতে পারবেন সহজে।

নিচের একটা লিংক দেওয়া থাকবে সেই লিংকে ক্লিক করে পেওনিয়ার অ্যাকাউন্ট খুলে নিবেন। নিচের এই লিংকে ক্লিক করে যদি আপনি অ্যাকাউন্ট খুলেন তাহলে আপনার জন্য সুবিধা হচ্ছে, আপনি যদি “sing up and earn  $25*” ক্লিককরেঅ্যাকাউন্টখুলেনতাহলে, প্রথম ১০০ ডলার ইনকাম করলে তার সাথে আরো ২৫ ডলার বোনাস পাবেন।

পেওনিয়ার একাউন্ট খুলতে এখানে ক্লিক করুন

“sing up and earn  $25*” ক্লিক করার মাধ্যমে অ্যাকাউন্ট খোলার চেষ্টা করবো।  ক্লিক করার সাথে সাথে সব ইনফর্মেশন চলে আসবে, আপনি আপনার ইনফর্মেশন গুলো Individual অপশনে ক্লিক করে দিয়ে দিবেন। আপনার প্রথম নাম, শেষ নাম, ইমেইল অ্যাড্রেস,পুনরায় ইমেইল অ্যাড্রেস, জন্ম সাল, এর পরে আপনি নেক্সট এ ক্লিক করবেন।

এখানে আপনার দেশের নাম পুরন করতে হবে, বাংলাদেশী হিসেবে আপনাকে বাংলাদেশি সিলেক্ট করতে হবে।এখানে দুই টা অ্যাড্রেস লাইন থাকবে অ্যাড্রেস লাইনে ১ এবং অ্যাড্রেস লাইন ২।  আপনার সঠিক  অ্যাড্রেস দিতে হবে, আপনি যে ঠিকানা দিবেন সেই ঠিকানায় মাস্টার কার্ড আসবে, একটা বিষয় বলে রাখা ভাল অ্যাকাউন্ট খোলার পর সাথে সাথে মাস্টার কার্ড পাওয়া যায় না, মাস্টার কার্ড পেতে হলে অ্যাকাউন্টএ মিনিমাম ৩০ ডলার থাকলে মাস্টার কার্ড অর্ডার করার অপশন পাবেন। এটা পেওনিয়ার এর বর্তমান আপডেট দেয়া নিয়ম।

এখন নেক্সট  অপশনে যাবেন তারপর আপনাকে পাসওয়ার্ড সিলেক্ট করতে হবে, ইমেইল এর পাসওয়ার্ড দিতে হবে এমন কোন নিয়ম নেই, পেওনিয়ার অ্যাকাউন্ট লগ ইন করার জন্য আপনি ইচ্ছেমত পাসওয়ার্ড সিলেক্ট করতে পারবেন। ডিরেকশন পাওয়ার জন্য পাশে ভাল ভাবে দেখে নিবেন কি ভাবে পাসওয়ার্ড সিলেক্ট করলে পাসওয়ার্ড ভাল হবে।

পাসওয়ার্ড একবার দেওয়ার পর পুনরায় আবার দিতে হবে,  এরপর “security question” একটিগুরুত্ব পূর্ণ বিষয়। security question এর answer গুলো মনে রাখতে হবে। আপনি যদি এই অ্যাকাউন্ট এর কোন কিছু পরিবর্তন করতে চান তাহলে security question এবং এর answer গুলো পরবর্তীতে প্রয়োজন হবে।  security question এবং এর answer গুলো মনে রাখার জন্য এগুলো অন্য কোন জায়গায় সেভ করে রাখতে পারেন, এর পর আপনার ন্যাশনাল আইডি কার্ড এর নম্বর গুলো দিতে হবে।

এর পরে নেক্সটএ গিয়ে ব্যাংক অ্যাকাউন্ট টাইপ সিলেক্ট করতে হবে, এখানে আপনি পার্সোনাল সিলেক্ট করবেন। এর পর ব্যাংক country বাংলাদেশ দিবেন এবং “currency” BDT দিতে হবে।

পেওনিয়ার এর নিয়ম অনুসারে আপনাকে এখানে ব্যাংক এর নাম দিতে হবে। এখানে অনেক ব্যাংকের নাম আছে,  এর মধ্যে যে ব্যাংক এ আপনার অ্যাকাউন্ট আছে সেই ব্যাংক এর নাম সিলেক্ট করতে হবে, বাংলাদেশের সব গুলো ব্যাংক সাপোর্ট করে, এর পর ব্রাঞ্চ এর নাম, অ্যাকাউন্ট নাম অ্যাকাউন্ট নাম্বার।

  • i agree to the terms and condition
  • i agree to the pricing and fees

এই দুটো অপশন মার্ক করে নেওয়ার পর  আপনাকে সাবমিট করতে হবে।

পেওনিয়ার কোম্পানি এর পক্ষ থেকে আপনাকে স্বাগতম জানাবে এবং কিছু পয়েন্ট বলে দিবে।

  1. application>completed
  2. review>in process
  3. receive payments

এরপরে আপনি আপনার ইমেইল চেক করে দেখতে পাবেন একটা মেইল আপনাকে পাঠানো হয়েছে। এগুলো আপনি ভাল করে দেখে নিবেন। ইমেইল পাওয়ার পরে আপনি দেখতে পাবেন।

  • upload documents, এখানে ক্লিক করলে documentscategory পাওয়া যাবে এখানে আপনাকে government issued photo id সিলেক্ট করতে হবে
  • document typeএ গিয়ে national government id সিলেক্ট করতে হবে।
  • country Bangladesh দিতে হবে।

ন্যাশনাল আইডি কার্ড এর পিকচার আপলোড করতে হবে, ন্যাশনাল আইডি কার্ডের সামনের এবং পিছনের অংশ আপলোড করার পর সাবমিট করতে হবে।

এখন আপনার পেওনিয়ার অ্যাকাউন্ট এ লগ ইন করতে হবে। লগ ইন করার জন্য ইউজার নেম এর এখানে আপনার ইমেইল অ্যাড্রেস এবং পাসওয়ার্ড এর এখানে আপনার সিলেক্ট করা পাসওয়ার্ড দিয়ে sing in এ  click করলে পেওনিয়ার এর মেইন পেজ এ লগ ইন হবে। এরপর আপনাকে অ্যাকাউন্ট ইনফর্মেশন আপডেট করতে হবে। প্রথমে আমরা একটা security question এবং এর answer করেছিলাম। এখানে আরও ২টা security question এবং answer দিতে হবে। মোট ৩টা করতে হবে আর এই question এবং answer গুলো মনে রাখার জন্য একই রকম answer দিলে অনেক সহজে মনে রাখতে পারবেন। এর পরে সাবমিট করতে হবে।

এখন আপনি আপনার অ্যাকাউন্ট এর ডিটেইলস দেখতে পারবেন। আপনি দেখতে পাবেন আপনার অ্যাকাউন্ট এ ০ ডলার আছে। তাই আপনি মাস্টার কার্ড এর জন্য অর্ডার করতে পারবেন না। মিনিমাম ৩০ ডলার ইনকাম করতে পারলে আপনার অ্যাকাউন্ট এ কার্ড এর জন্য অর্ডার করার অপশন আসবে।

আপনার অ্যাকাউন্ট আরও অনেক ইনফর্মেশন পাবনে, যখন আপনার অ্যাকাউন্ট এর রিভিউ কনফার্ম হয়ে যাবে, যেমন ইউকে ব্যাংক এর ইনফর্মেশন, ইউএসএ ব্যাংক এর ইনফর্মেশন আরো অনেক ব্যাংক এর ইনফর্মেশন পেয়ে যাবনে। আর ঐ দেশের ব্যাংক গুলোতে আপানার অ্যাকাউন্ট খোলা হয়ে যাবে।

আশা করি, আপনাদের ভালো লেগেছে। সেই সাথে এমন আরও ভাল ভাল হেল্পফুল টিউটোরিয়াল পেতে আমাদের channel টি subscribe করা না থাকলে চ্যানেলটি Subscribe করে রাখুন।

ইউটিউব চ্যানেল লিংকঃ https://www.youtube.com/channel/UClIC3SgneIgDRkFdJdVxaSw

আপনি চাইলে আমাদের সাথে যোগাযোগ করতে পারেন। নিচে বিস্তারিত দেয়া হলঃ

ওয়েবসাইটঃ TechPagla.com

ফেসবুক পেইজঃ fb.com/TechPaglaa

ফেসবুক গ্রুপঃ fb.com/groups/TechPagla

টুইটার একাউন্টঃ twitter.com/TechPagla

লিংকডইন কোম্পানি পেইজঃ linkedin.com/company/techpagla

পিনটারেস্ট একাউন্টঃ pinterest.com/TechPagla

সবাই ভাল থাকবেন ধন্যবাদ।

LEAVE A REPLY

three + seventeen =